সরকারী পশুরা মানুষেরই শুধু নয়, পশুর ভাগের খাদ্যও চুরি করে… (প্রত্যাহার)

168

শেখনিউজ রিপোর্টঃ বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও পশু সম্পদ মন্ত্রী এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম ব্যক্তিগতভাবে চিড়িয়াখানা পরিদর্শন করেছেন এবং প্রাণীদের খাদ্যাভাবের যে ছবি প্রকাশিত হয়েছে তা সঠিক নয় বলেই দেখেছেন। মন্ত্রী ব্যক্তিগতভাবেই শেখনিউজ ডট কমের প্রধান সম্পাদককে বিষয়টি জানিয়েছেন।
তিনি জানান এ ছবিটি বিদেশের কোন চিড়িয়াখানার ছবি, বাংলাদেশের নয়।

Online building design approval to start May 1: Rezaul ...

আমরা ছবিটি গুগলে সার্চ করে দেখেছি এটা বাংলাদেশের নয়, সুদানের। এবং এগুলো জানুয়ারি ২০২০ এর ছবি। শেখনিউজ ডট কম এর পক্ষ থেকে এ বিরাট ত্রুটির জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। ধন্যবাদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমকে দ্রুত এবং ব্যাক্তিগতভাবে বিষয়টি তদন্ত করার জন্য।

জনগণের মধ্যে যারা এমন ভুল তথ্য প্রদান করছেন তাদের প্রতি আহবান আগ বাড়িয়ে এমন ভুল তথ্য আমাদের দিবেন না। এতে জাতীয় চরিত্রের ভুল বহিঃপ্রকাশ ঘটে। আমরা তথ্য প্রদানকারীর নাম প্রকাশ থেকে আপাতত বিরত থাকলাম।

সংবাদটি ছিল নিম্নরূপঃ

শেখনিউজ রিপোর্টঃ সরকারের লোকজন মানুষের খাবার চুরি করতে করতে পশুর খাবারেও ভাগ বসিয়েছে। অভিযোগ এসেছে মিরপুর চিড়িয়াখানায় গত ৩ মাস ধরে পশুদের খাদ্যাভাবে আছে। এদের কোন খাবারই দেয়া হয় না। এই পশুদের দিয়ে শত কোটি টাকা রাষ্ট্র কামাই করেছে; মানুষ আনন্দ করেছে। আর আজ এরা মৃত প্রায়!

এই পশুদের প্রতি রাষ্ট্রের দায়িত্ববানদের কোনই মায়া নেই। খাদ্য না থাকলে এদের জঙ্গলে রেখে আসা হোক বলে দাবী উঠেছে। কিন্তু মানুষের মাঝে থেকে অমানুষদের কারনে এই পশুরা এইভাবে মরবে এটা সত্যি লজ্জা জনক।

এদের বরাদ্দের টাকা কই গেলো? দ্রুত তদন্ত করে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দেয়া হোক। ঘটনা সত্য হলে যারা এই অবোধ প্রাণীদের এই অবস্থা করেছে সেই পশুদের এদের সামনে খাদ্য হিসেবে দিয়ে দেয়া হোক! এমন দাবীও এসেছে। শেখনিউজ ডট কমের প্রধান সম্পাদক শেখ মহিউদ্দিন আহমেদের ফেসবুক প্রফাইলে এ বিষয়ে স্ট্যাটাস দিলে বিভিন্ন জন নানান মন্তব্য করেছেন।

মাসুদ বাশার লিখেছেন, পশুমন্ত্রী কি এগুলা দেখে না? আমিনুল ইসলাম তুহিন লিখেছেন, মানুষ গুলো আগের মতো মানুষ নাই।

অসীম কর্মকার লিখেছেন, এদের টাকা মারা সহজ বিষয়।এরাতো কোথাও নালিশ দিতে পারবেনা। হয়তো ক্ষুদার্থ আবস্হায় ওদের একদিন খেয়ে ফেলবে।

ইউকের কার্ডিফ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ডঃ খলিফা মালিক লিখেছেন, Some two-legged animals have stolen the food allocated for these four-legged animals!

সাবেক জেলা জজ এসকেএম আনিসুর রহমান খান লিখেছেন, দ্রুত ওদের খাবারের ব্যবস্থা করুন।

আহমেদ শোয়েব লিখেছেন, চিড়িয়াখানার পশুদের খাবারের টাকা যারা মেরে খায়, তাদেরকে চিড়িয়াখানায় পশুদের মতো একটা খাচায় বেধে রাখা হোক, ফটো উঠিয়ে নাম ধাম প্রকাশ করা হোক, দুইবেলা সীমিত আকারের খাবার দেয়া হোক, এটাই তাদের কাজের প্রতিদান হওয়া উচিত |

পশুপ্রেমি মানুষই শুধু নয়; সাধারন মানুষের মনও এদের জন্য কেঁদে উঠেছে; শুধু কাঁদে না সরকারের মন; যারা নিরস্ত্র মানুষকে নির্বিচারে গুলি করে মারে তাদের জন্য এই সকল বিষয় খুবই মামুলী। চেতনার বেড়াজালে সবকিছু আবদ্ধ।

সরকারের মধ্যে যদি কোন মানুষ থাকে, তবে এ বিষয়টির আশু সমাধান প্রয়োজন। রাষ্ট্রের যোগ্যতা না থাকলে এই পশুদের সুন্দরবনে পুনর্বাসিত করার দাবী উঠেছে সচেতন মহল থেকে।

Facebook Comments

Hits: 124

SHARE