প্রধান বিচারপতির করোনাঃ সরকার প্রত্যাহার চায়- সেনাবাহিনী রাজী নয়!

264

শেখনিউজ রিপোর্টঃ সর্বশেষ রিপোর্ট মোতাবেক বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি হয়েছেন। তার করোনা হলেও এখনও তা কোন ক্রিটিক্যাল পর্যায়ে নয়। তবে করোনার জন্য সেনাবাহিনীর সহায়তা নিলেও অজ্ঞাত কারনে সরকার মাঠ পর্যায়ের সেনাদের ব্যারাকে ফিরিয়ে নিতে চাচ্ছে। এ বিষয়ে অসন্তোষ বিদ্যমান।

সুত্র জানিয়েছে, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় সিভিল প্রশাসনকে সহায়তার জন্য সরকার সেনাবাহিনী মাঠে নামালেও, সেনাবাহিনীর প্রতি জনগণের প্রবল সমর্থন এবং আওয়ামী ত্রাণ চোরদের বিষয়ে সেনাদের কঠোর মনোভাবের কারনে সরকার যেকোন উপায়ে তাদের ব্যারাকে ফিরাতে চাচ্ছে। কিন্তু সুত্র জানিয়েছে দেশের এই ক্রান্তিকালে সেনাবাহিনী জনগণের পাশে থাকতে চাচ্ছে এবং সারাদেশে সেনাবাহিনীর সদস্যদের পরিবার পরিজন এবং আত্মীয়স্বজনদের রাজনৈতিক দুর্বৃত্তদের হাত থেকে রক্ষা করার এ সুযোগ হাতছাড়া করতে রাজী হচ্ছে না।

যেহেতু এটি কোন রাজনীতি নয় বা রাষ্ট্র ক্ষমতা দখলের কোন প্রক্রিয়া নয়, তাই সেনাবাহিনী জনগণের ও আত্মীয় স্বজনদের সেবা নিশ্চিত করার এ সময়কালকে উপেক্ষা করতে চায় না। এ নিয়ে সরকার ও সেনাবাহিনীর মধ্যে দেনদরবার চলছে বলে জানা গেছে।

ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের (সিএমএসডি) পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মোহাম্মদ শহীদুল্লাহকে সরকারের ইচ্ছা মোতাবেক বিভিন্ন ক্রয়ে চাপিয়ে দেয়া আদেশ মানতে রাজী না হওয়ায় তাকে সেনাবাহিনীতে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বেও সরকারের সর্ব উচ্চ পর্যায় থেকে জেনারেল এইচ এম এরশাদকে সামরিক মর্যাদায় দাফনে নিষেধ করা ও বাধা দেয়া সত্বেও বর্তমান সেনাপ্রধান ও অন্যান্য জেনারেলগণ সরকারি সেই অভিপ্রায় উপেক্ষা করেন। বর্তমানেও জনগণের এই মহাদুর্যোগে মাঠ থেকে সেনাবাহিনীকে ব্যারাকে ফিরিয়ে নেবে না বলে তারা সরকারকে জানিয়ে দিয়েছে।

Facebook Comments

Hits: 170

SHARE