ডাক্তারের বাবা হিন্দু অতিরিক্ত সচিব যে দেশে বিনা চিকিৎসায় মরে !

100

শেখনিউজ রিপোর্টঃ অন্য সবার কথা বাদ দিলেও বাংলাদেশ সরকারের একজন অতিরিক্ত সচিব তাও আবার সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ, সেই মানুষটি আবার একজন ডাক্তারের পিতা, অবশেষে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করলেন। এ কথা ফাঁস করায় চিকিৎসক কন্যার কোন শাস্তি সরকার দেয় কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়।

বিবরনে প্রকাশ, কিডনির জটিলতায় অসুস্থ অতিরিক্ত সচিব গৌতম আইচ সরকারকে বিভিন্ন হাসপাতাল ঘুরেও ভর্তি করানো যায়নি। উপায়ন্তর না পেয়ে অবশেষে বৃহস্পতিবার কোভিড-১৯ রোগীদের জন্য নির্দিষ্ট কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । কিন্তু শনিবার বেলা ১২টার দিকে সেখানেই এক প্রকার বিনা চিকিৎসায় গৌতম আইচের মৃত্যু হয়|জানিয়েছেন তার কন্যা ডাঃ সুস্মিতা আইচ।

যে ৩৩৩ হটলাইন নম্বর থেকে সরকার স্বাস্থ্য সেবা দিচ্ছে, সেখানে দায়িত্ব পালন করা ডাঃ সুস্মিতা আইচ বলেন, কোভিড-১৯ এর কোনো উপসর্গ না থাকলেও অন্য কোনো উপায় না পেয়ে অনেক কষ্টে তার বাবাকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। তার আইসিইউ সাপোর্টটা খুব দরকার ছিল, কিন্তু তা পাওয়া যায়নি। সুস্মিতা বলেন তার বাবার চিকিৎসাই হল না, তিনি মারা গেলেন। আক্ষেপ করে বলেন ডাক্তার হয়েও তিনি কিছু করতে পারলেন না।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাকে কুর্মিটোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও তার বাবা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত কি না, তা জানার চেষ্টাও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ করেনি।।

একজন অতিরিক্ত সচিবেরও এ দেশে কোন চিকিৎসার গ্যারান্টি নেই। করোনা ভাইরাসের কারনে ভারতে গিয়ে চিকিৎসা নেয়ার পথও বন্ধ নইলে ভারত এই সুযোগে বেশ বৈদেশিক মুদ্রা কামাইয়ের সুযোগ পেতো। প্রতিবছর এমন রোগী লাখ লাখ ভারতে যায় চিকিৎসার জন্য, বিলিয়ন ডলার বাংলাদেশীদের কাছ থেকে আয় করে ভারত। সুযোগটি সরকার করে দিয়েছে বাংলাদেশীদের স্বাস্থ্য সেবা ধ্বংস করে দিয়ে।

অবশ্য কেউ জানেনা ভারতকে এই সুযোগ করে দেয়ার বিনিময়ে বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট রাজনীতিবিদ ও আমলারা কে কত ঘুষ ভারতের কাছ থেকে লাভ করেন।

 

Facebook Comments

Hits: 57

SHARE