দৈত্যময় নেতার প্রতিকৃতি

67

রেজাউল করিম রনিঃ এটা নিয়ে অনেক দিন ধরে লিখতে চাই। বড় করে লিখা কবে না কবে হবে, তাই অল্প কথায় বলি এখানে। আমরা যে কথায় কথায় বলি অমুক খুব কঠিন লিডার। সব কিভাবে ঠান্ডা কর দিলো। আসলে শক্তিমান নেতা কথাটা একটা মিথ। পাবলিক এই মিথ তৈরি করে। নেতা শক্তিমান না। আমরা তাকে শক্তিমা ভাবি। নেতার কিছু গুন থাকে তা অন্যদেরও থাকে। কিন্তু সবাইকে আমরা নেতা বানাতে পারি না। বানাই না। বা সবাই এটা ধারণও করে না।

আমি নাকি সবসময় আজব আজব জিনিস খূজে পাই। 🙂 এই কথা শুনে আমার এক বন্ধু কইছিল, যার যেমন বুঝ তার তেমন খোঁজ। গত বছর গার্ডিয়ানে একটা বইয়ের রিভিউ পড়ে অগ্রহী হইছিলাম। প্রায় এক বছর পরে ডিজিটাল বাংলাদেশে বইটা হাতে পাইলাম। বইটার নাম,
The Myth of the Strong Leader: Political Leadership in the Modern Age.

বাংলাদেশে মিথ তৈরির জন্য পেশাদার গুন্ডা ও দলীয় বুদ্ধিজিবির অভাব কখনও হয় নাই। লেখক-কবিরাও এইসব ইতরামি কম করে নাই। একটা লোক বাংলাদেশে প্রথম গণহত্যা শুরু করল, প্রথম স্বৈরতন্ত্র জারি করল। আর তারেই বাপ বাপ বলে নাচা শুরু হইল। তার শাসনের নানা দিক নিয়ে মিডিয়া এখনও মাতমাতি করে। অন্য দিকে গ্রামে গ্রামে মহড়া দিয়া স্বৈরাচার হয়ে গেল ইতিহাসের মহান নেতা । এই যে ফাও মিথ তৈরি করা হয় নেতাদের নিয়া এটার উপর কোন আলোচনা দেখি নাই এতো দিন। সবাই খালি মিথ তৈরি করতেই বিজি থাকে। অক্সফোর্ডী পন্ডিত, Archie Brown অদ্ভুত এক বই লিখছেন। গার্ডিয়ান একদম মিছা যে কয় নাই তা বইটা খুলেই টের পাইলাম, গার্ডিয়ান লিখছে,

“Brown has provided in The Myth of the Strong Leader two books in one. The first, as indicated by the title, is an opinionated treatise on the idea of political leadership. The second, which takes up the bulk of the book, is a rich description of different varieties of political leadership in diverse cultures. It is hard to imagine a better guide than Brown, who has lived and worked in the UK, US and Russia, and is both an outstanding political scholar and an elegant, witty writer.”

কথা সত্য। লেখকের রসবোধ ভাল। আসলে এক সাথে দুইটা বই ই লিখছেন তিনি। আমি আগ্রহী দৈত্যময় নেতা তৈরির যে সাংষ্কৃতিক জোয়ার জারি হয় তা বুঝতে। এই বিষয়ে ব্রাউন সাহেবের চেয়ে ভাল বই দেখি নাই। এক দিকে থিওরিটিক্যাল বেইজ ও অন্য দিকে কনটেমপুরারি পলিটিক্যাল লিডারশিপকে নিয়ে এমন বই বিরল।

রাষ্ট্রকে ব্যবহার করে প্রচন্ড শক্তিশালি ইমেজ তৈরি করা ও ভয়ের পরিবেশ কয়েম করে নিজেকে মহান ও শক্তিশালি নেতা বলে, বিশ্বনেতা বলে প্রচারের যে চেষ্টা বাংলাদেশে এটা মিথ না হয়ে হয়ে যাচ্ছে কৌতুক। কারণ মিথ তৈরি করতে হলেও কিছু ক্যাপাসিটি লাগে। কিছু রিয়েল ম্যাজিক বা ক্যারিশমা লাগে যা এই সব চাপাবাজদের নাই। ফলে এখানে কৌতুকই মিথ হয়ে যাচ্ছে। স্টং লিডার মানে আসলে দৈত্য। নেতা হবে স্পিরিচুয়াল, নট স্টং। ক্ষমতা যা প্রকাশ করে তা ধ্বংসও করে আর যা প্রকাশ করে না কিন্তু নিজেকে বিকাশ করে সেটাই আসলে ক্ষমতা। যা রাজনৈতিক নেতারা বুঝতে পারে না। কাজেই স্টং লিডার একটা উতকল্পনা। এভবেও ভাবতে পারেন, সে যতই স্টং হোক আজরাইলকে তো আর ঠেকাতে পারে না। সো তাকে এতো স্টং ভাবার কিছু নাই।

লেখকঃ সম্পাদক, জবান

Facebook Comments

Hits: 20

SHARE