ছাত্রদলের জাতীয় ভিত্তিক কমিটির উপর জেলা ভিত্তিক আদালতের নিষেধাজ্ঞা

145

শেখনিউজ রিপোর্টঃ অবশেষে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের নবনির্বাচিত কমিটির সব কার্যক্রমে অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা দেয়ানো হয়েছে ঢাকার আদালত দিয়ে। জাতীয় ভিত্তিক একটি সংগঠনকে একটি জেলা জুরিশডিকশনের আদালত কর্তৃক নিষেধাজ্ঞা দেয়ার বিষয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

ঢাকা জেলার সহকারী জজ আদালত আরও জানতে চেয়েছেন যে বর্তমান কমিটি কেন বাতিল ঘোষণা করা হবে না এবং তা জানতে চেয়ে সংগঠনের নবনির্বাচিত সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন শ্যামলকে আগামী সাত দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে। উল্লেখ্য এই দুইজন ঢাকা জেলা কমিটির নয় বরং পুরো বাংলাদেশের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন।

ছাত্রদলের সদ্যবিদায়ী কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আমান উল্লাহ নবনির্বাচিত কমিটির কার্যক্রমের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আদালতে ওই আবেদন করলে ঢাকার চতুর্থ সহকারী জজ আদালতের বিচারক নুসরাত সাহারা বীথি সোমবার এ আদেশ দেন। একটি সুত্র জানিয়েছে এই আদেশের বিষয়ে একটি সংস্থা কলকাঠি নেড়েছে। যে কারনে জেলা ভিত্তিক নিম্ন আদালত জাতিয়ভিত্তিক বিষয়ে আদেশ দিতে সক্ষম হয়েছে।

আবেদনে বলা হয়, গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ ১৯৭২ অনুযায়ী ছাত্র সংগঠন কোনো রাজনৈতিক দলের অঙ্গসংগঠন হিসেবে থাকতে পারে না। সে অনুযায়ী ২০১৭ সালের ৩১ অক্টোবর বিএনপি নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়ে বলেছিল, ছাত্রদল তাদের অঙ্গসংগঠন নয়। বিএনপি পঞ্চম কাউন্সিলে তা পাসও করেছিল। কিন্তু চলতি বছরের ৩ জুন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব সংবাদ সম্মেলন করে ছাত্রদলের কমিটি ভেঙে দেন। ৯ জুন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নির্বাচন পরিচালানোর জন্য তিনটি কমিটি গঠন করেন এবং ২২ জুন ছাত্রদলের ১২ জনকে বহিষ্কার করেন, যা সম্পূর্ণ বেআইনি।

উল্লেখ্য, গত ১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের ষষ্ঠ কাউন্সিল হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ১২ সেপ্টেম্বর আমানের করা আরেক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জেলার এই আদালত ছাত্রদলের কাউন্সিলের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ জারি করেছিলেন। একই সঙ্গে ছাত্রদলের কাউন্সিলে কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে বিএনপি’র জাতীয় ভিত্তিক কমিটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১০ নেতাকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন ঐ জেলা ভিত্তিক নিম্ন আদালত।

এরপর ১৭ সেপ্টেম্বর সারাদেশের ৫৩৩ জন কাউন্সিলের মতামতের ভিত্তিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে সংগঠনের সাংগঠনিক অভিভাবক হিসেবে ঘোষণা করা হয়। কাউন্সিল নিয়ে বিগত দিনের দলের কার্যক্রমকে বৈধ ঘোষণা করেন কাউন্সিলররা। এর পরদিনই তারেক রহমান ছাত্রদলের সাবেক নেতাদের সঙ্গে স্কাইপিতে বৈঠক করে কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত দেন। ফলে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে ছাত্রদলের কমিটি গঠনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের বাসায় রাতভর ভোটগ্রহণ ও পরদিন সকালে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এতে ফজলুর রহমান খোকন ছাত্রদলের সভাপতি এবং ইকবাল হোসেন শ্যামল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

আইন বিশেষজ্ঞগণ নিম্ন আদালতের এই আদেশ এবং ছাত্র সংগঠনের বিষয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর অবস্থান ও ক্ষমতা নিয়ে উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্ত প্রয়োজন বলে মনে করেন।

Facebook Comments

Hits: 49

SHARE