এক-এগারোর রাজনীতি সফল হতে চলেছে !

194

রেজাউল করিম রনিঃ  বিএনপি ও আওয়ামী লীগ এই দুইটা দলকে মাইনাস করাই ছিল এক-এগারোর প্রকল্প। কিন্তু প্রকল্পে ভূল ছিল ২ টাকে এক সাথে মাইনাস করতে যাওয়া। পরে সেই প্রকল্প একটু ঘুরায়ে বাস্তবায়না করা হয়।  এটাকে বলতে পারেন গুন্ডা দিয়ে ছেচড়াদের সাইজ করা। মানে লীগ দিয়ে বিএনপি বধ পদ্ধতী গ্রহণ করা হয়। লীগ সরকার এক-এগারোর ফসল -এটা লীগই বলেছে বহুবার।

লীগ ক্ষমতাকে আকড়ে ধরতে গিয়ে শুধু দেশের ১২ টা বাজায় নাই, নিজের রাজনৈতিক ভবিষ্যতের কবর রচনা করে ফেলেছে। এবং সে তার দায়িত্ব হিসেবে বিএনপিকে দমনের যে মিশন নিছে তা সফল না হলেও বিএনপি দমে গেছে। লীগের রাজনীতির বাইরে যেতে পারছে না। ফলে তাদের নিজেদের রাজনীতি বলতে তেমন কিছু আর করে দেখাবার তো অবস্থায় নাই। এই দুটা দলের প্রধান ভূল হল একজন আর একজনকে শত্রু হিসেবে সিলেক্ট করা। কারণ এরা একটা অপরটার শত্রু হওয়ার যোগ্য না। বরং বন্ধু হতে পারে।

ফলে ২ টা দলই এখন রাজনীতি শূণ্য। এবার আসেন জনগনের কথায়। জনগন সব কিছুতেই মজা পায়। নিখুত কৌতুকের প্রতিভাতে উজ্জল চারপাশ। মিডিয়া নিজের জন্মপরিচয় সংকট উদাম করে দেখাইছে। ফলে এখন দেশ ধীরে ধীরে রাজনীতিহীন একটি ‘ক্ষমতা’ চর্চার পারফেক্ট ভূমি হয়ে উঠছে।

আজকে যারা ক্ষমতায় থেকে বগল বাজাচ্ছেন। বা যারা একদিন ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন দেখছেন অনেক কষ।ট সহ্য করেও -একটু সাবধান। খেলা আপনাদের হাতে ছিল না। নাই। থাকবে না।

যার রাজনীতি থাকে না তার ক্ষমতা থাকে না। আপনারা নিজেদের রাজনীতি খেয়ে ফেলছেন। ফলে নিজেদের করুণ পরিণতির জন্য তৈরি হওয়া ছাড়া আর কোন পথ খোলা নাই। আগামী দিনের বাংলাদেশ আপনাদের জমিদারি মত চলবে না।

এই যে এক কূটিল খেলার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ, এটা থেকে রক্ষার জন্য একটা জনশক্তির উত্থান না হোক, প্রদর্শন অন্তত দরকার। নইলে মুরুব্বিরা চাকর-বাকর দিয়ে জনগনকে শাসন করার সীধান্ত নিতে দ্বিধা করবে না। কারণ জনগনই মনে করনে, দলীয় ক্যাডার ও গুন্ডাদের শাসনের চেয়ে সরকারী চাকরীজিবিদের শাসন ভাল।

মোদি জি এবার ক্ষমতায় এসেই ভারত-আমেরিকার যৌথ প্রকল্প শক্ত ভাবে বঙ্গভূমিতে বাস্তবায়ন শুরু করবেন। তখন এই পোষ্টের বক্তব্য আরও পরিস্কার হবে।

লেখক: কবি, বিশ্লেষক, সম্পাদক দি জবান ডটকম.

Facebook Comments

Hits: 103

SHARE