হাসিনা সরকারের ২য় শিকার ইসি’র সাবেক উপসচিব শামছুল

181

শেখনিউজ রিপোর্টঃ শপথ না নেয়া সরকারের হাতে দ্বিতীয় শিকারে পরিনত হলেন নির্বাচন কমিশনের অবসরপ্রাপ্ত উপসচিব সামছুল আলম। মোবাইলে ফোন করে একটি নির্বাচনী রেজাল্টশিট চাওয়ার অপরাধে নির্বাচন কমিশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা অরবিন্দ দাশের দায়ের করা মামলার তদন্ত করছেন শেরেবাংলা নগর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সনজিৎ কুমার ঘোষ।

রেজাল্টশিট চাওয়ার অপরাধে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে যে, পরস্পর যোগসাজশে সরকারি সম্পত্তি ও জানমালের ক্ষতি করার জন্য অন্তর্ঘাতমূলক কাজ করার অপচেষ্টা করেছেন সামছুল আলম। এবং রেজাল্ট এর বার্তা শিট দেওয়া সম্ভব নয় বলা সত্ত্বেও তিনি অবৈধ উপায়ে বার্তাশিট সংগ্রহ করার জন্য অবৈধভাবে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের মতো সংরক্ষিত স্থানে অনধিকার প্রবেশ করেছেন।

এজাহারে বলা হয়, অজ্ঞাতনামা আসামিদের ইন্ধন ও সহায়তায় গেজেট প্রকাশের আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফলের বার্তাশিট বা নির্বাচনসংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করে উসকানিমূলক তথ্য উপস্থাপন করে সরকারি সম্পত্তি ও জানমালের ক্ষতি করার জন্য অন্তর্ঘাতমূলক কাজ করার উদ্দেশ্য ছিল সামছুলের।

তদন্ত কর্মকর্তা সনজিৎ কুমার ঘোষ উপসচিব সামছুল আলমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিন রিমান্ড চান আদালতের কাছে, কিন্তু বিচারিক আদালত বহুত দয়া পরবশ হয়ে পুলিশকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

উল্লেখ্য, সামছুল আলমকে বার্তাশিট দেয়ার কথা বলে নির্বাচন কমিশনে নিয়ে কমিশন সচিবের একান্ত সচিবের (পিএস) কক্ষ থেকে ৩১ ডিসেম্বর বিকেল সাড়ে পাঁচটায় আটক করা হয়।

Facebook Comments
SHARE