গোয়েন্দা রিপোর্টঃ অত্যাচার অব্যাহত রাখলে পুলিশ গণরোষের শিকার হতে পারে

222

শেখনিউজ রিপোর্টঃ পুলিশ অব্যাহতভাবে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মীদের উপর অত্যাচার নিপীড়ন বহাল রাখলে পুলিশ যে কোন সময় গণরোষের শিকার হতে পারে। এমনকি সাধারন নাগরিকদের গ্রেপ্তার করে এতদিন যে অর্থ বানিজ্য চালিয়ে এসেছে কিছু পুলিশ তারাও এই নির্বাচনী ডামাডোলের সময়ে সাধারন নাগরিকদের আক্রোশের শিকার হতে পারে যে কোন সময় যে কোন স্থানে। সুত্রমতে এমনই এক গোয়েন্দা রিপোর্ট জমা হয়েছে সরকারের কাছে। 

নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর থেকেই সরকার বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর উপর পুলিশি অত্যাচার বৃদ্ধি পায় ভয়ংকরভাবে; যদিও নির্বাচনপূর্বকালীন সময়ের মত পুলিশ কর্তৃক রাজনৈতিক নেতা কর্মী গুম ও খুনের ঘটনা ঘটছে না কিন্তু গ্রেপ্তার ও নির্যাতনের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ায় নির্বাচনের লেভেল প্লেইং ফিল্ড না থাকার অভিযোগ রয়েছে। এমনিতেই নাগরিকদের মধ্যে পুলিশের গ্রেপ্তার বানিজ্য নিয়ে অসন্তোষ চরমে; যে কোন সময়ে তা বিস্ফোরিত হতে পারে; তখন সেই জনরোষ সামাল দিতে সেনাবাহিনী তলব করা ছাড়া সরকারের কোন উপায় থাকবে না বলে অভিজ্ঞ মহলের ধারনা। 

মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে র‍্যাবের অভিযান নিয়ে নাগরিকদের মধ্যে তেমন কোন অভিযোগ না থাকলেও কিছু কিছু ক্রসফায়ার নিয়ে অসন্তোষ রয়েছে যেগুলোকে নাগরিকদের মনে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড বলেই ধারনা রয়েছে; তবুও মাদকের বিস্তার রোধে জনগণের মধ্যে অনেকখানি সন্তোষ রয়েছে। কিন্তু পুলিশ মাদক ব্যবসায়ীদের ছত্রছায়া দেয় এ অভিযোগ জনমনে প্রথিত। 

নির্বাচনী প্রচারাভিযানকালে মাদকের ব্যবহার বৃদ্ধি পায় এটি সর্বজন স্বীকৃত; এখন পুলিশ এ ব্যপারে কঠোর না হলে সেটিও পুলিশের ভাবমূর্তিকে বিনষ্ট করবে এবং নাগরিকদের খেপিয়ে তুলতে পারে বলে জানা গেছে। 

এমতাবস্থাত নির্বাচন কমিশন পুলিশ বাহিনীকে নিয়ন্ত্রনে ব্যর্থ হলে যে কোন অঘটনের দায়ভার নির্বাচন কমিশনের উপর বর্তাবে যা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে এমনকি এমনতর যে কোন অঘটনে নির্বাচন ব্যহত হওয়ার সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দেয়া যাবে না। 

Facebook Comments
SHARE