যে কারনে তারেক রহমানকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়নি….. !

120

শেখনিউজ রিপোর্টঃ সারা বিশ্বের বাংলাদেশী জনগোষ্ঠী যে বিষয়টিতে নিশ্চিত ছিল তা হলো, তারেক রহমানকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হবে; কিন্তু বাস্তবে তা ঘটেনি।  বাস্তবতা হলো আদালতের মাধ্যমে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয়েছে।  বিভিন্ন মহল থেকে নাম না প্রকাশ করার শর্তে তাদের অভিমত দিয়েছেন। এর মধ্যে তাকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টার অপশন এবং দলীয় পদে নিষিদ্ধ করার বিষয়টি নিয়েই বেশি প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। 

আওয়ামী সংশ্লিষ্ট একাধিক সুত্র বলেছে, ১৫ আগস্ট তৎকালীন রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবর রহমানের স্বপরিবারে হত্যার ঘটনায় যাদের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে, এদের মধ্যে যারা বিদেশে আশ্রয়ে রয়েছেন, সেই সকল দেশে বহাল আইনি কাঠামোতে মৃত্যুদণ্ডাদেশের কোন ব্যক্তিকে স্বদেশে প্রেরন পুরোপুরি নিষিদ্ধ।  তাই তারেক রহমানের বেলায় আওয়ামী সরকার তাকে ফিরিয়ে আনার একটি অপশন খোলা রাখতেই এই পদক্ষেপে গিয়েছে।  এর বাইরে বিএনপির মত বড় প্রভাবশালী দলের ভারপ্রাপ্ত প্রধানের বিরুদ্ধে এমনতর মৃত্যু দণ্ডাদেশের কারনে দেশ অস্থিতিশীল হওয়ার সম্ভাবনাকেও তারা উড়িয়ে দেয়নি।  এমনিতেই বিচারবিভাগের পক্ষপাতিত্ব মুলক অবস্থান নিয়ে জনমনে ব্যপক সন্দেহ বিরাজমান।

বিএনপিসহ অন্যান্য সুত্র জানিয়েছে, তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি মূলত আগামী নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে আরপিও (Representation of peoples order) পরিবর্তন করে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান সহ বিপুল সংখ্যক নেতার দলীয় প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিলের প্রচেষ্টায় যাচ্ছে।  তাই রাজনৈতিকভাবে হত্যার দ্বারা প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে পারলে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে লাভ নাই।

যদিও অন্য একটি মহল থেকে বলা হয়েছে, আগামীতে মায়ানমারের বিষয়ে পাশ্চাত্যের যে কোন স্বার্থ রক্ষায় কার্যক্রম শুরু হলে সে সময়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে তারা তারেক রহমানকে ফিরিয়ে দেয়ার একটি গোপন অপশন হিসেবে টোপ ফেলবেন। যদিও ইন্টারন্যাশনাল প্রোটেকশন পাওয়া কাউকে দেশে ফিরিয়ে দেয়ার রেওয়াজ নাই বললেই চলে।

Facebook Comments
SHARE