গ্রেনেড হামলার রায়ঃ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড এবং ১৯ জনের যাবজ্জীবন

25

শেখনিউজ রিপোর্টঃ আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে সাবেক প্রতিমন্ত্রী বাবর, উপমন্ত্রী পিন্টুসহ ও ২ গোয়েন্দা প্রধানসহ ১৯ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ ১৯ জনকে যাবজ্জীবন দণ্ডের আদেশ দিয়েছে আওয়ামী সরকারের বাংলাদেশী আদালত।  এছাড়াও ৩ জন সাবেক পুলিশ প্রধানসহ ১১ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়েছে।

ঘটনার সময়ে সাবেক এনএসআই প্রধান বি জেনারেল আব্দুর রহিম হাসপাতালে পাইলস অপারেশনে থাকলেও এবং সুস্থ হয়ে ফিরে এসে ঘটনার তদন্তের আলাদা ব্যবস্থা নিলেও তাকেও মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে কিন্তু ভারপ্রাপ্ত এনএসআই প্রধান ও ঢাকার এনএসআই ডিডিকে জিজ্ঞাসাবাদও করা হয় নাই।  বি জেনারেল রহিম যেভাবে গোপন তদন্ত শুরু করেছিলেন তাতে তার সংস্থার অন্য ডিরেক্টরবৃন্দও তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছিলেন। এ তথ্যগুলো সরকারের কাছেই রয়েছে।

প্রায় ১০ বছর বিচারিক কার্যক্রম শেষে বুধবার দুপুরে ঢাকার দ্রুত (?) বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক শাহেদ নূর উদ্দীন এ রায় ঘোষণা করেন। রায়কে কেন্দ্র করে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয় পুরো রাজধানীজুড়ে।  আদালত প্রাঙ্গণ ও বিএনপি কার্যালয়ের সামনে ব্যাপক পরিমাণ পুলিশ মোতায়েন করা হয় জনরোষের ভয়ে।

আওয়ামী লীগ দাবি করে গ্রেনেড হামলার প্রধান টার্গেট ছিলেন তাদের সভানেত্রী শেখ হাসিনা। শুরু থেকেই নৃশংস হামলার তদন্ত বিতর্কিত হয়ে পরে মূলত স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবর এর অরাজনৈতিক বক্তব্য ও কার্যক্রমে।   ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় নতুন করে তদন্ত শুরু হয়।  হামলার ঘটনায় আনা দুই মামলায় আসামির সংখ্যা ৪৯ জন।
Facebook Comments
SHARE