ব্যাংককে ‘র’ এর সাথে বিএনপি নেতাদের কিসের বৈঠক?

20

শেখনিউজ রিপোর্টঃ থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’ এর সাথে গোপন বৈঠকে বসছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপির ঊর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দ। লন্ডনে টারজান খ্যাত একজন নেতার ঘনিষ্ঠ সুত্রে এ তথ্য জানা গেছে যা অন্যান্য সুত্র থেকেও যাচাই করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল, স্থায়ী কমিটির আমীর খসরু মাহমুদ এবং লন্ডন থেকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা নবীন জাতীয়তাবাদী হুমায়ূন কবির এখন থাইল্যান্ডে অবস্থান করছেন। তবে দেশপ্রেমিক জাতীয়তাবাদীদের ধারনা এ বিষয়টি দলীয় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের অগোচরেই হচ্ছে; কারন জেনারেল জিয়ার বিএনপি ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’ এর সাথে আপোষমুলক বৈঠক করবে সেটি জিয়ার সন্তান হিসেবে হতে দেবেন না বলেই তাদের বিশ্বাস।

জানা গেছে বিএনপির সকল স্তরের নেতা কর্মীরা যখন একটি আন্দোলন ও পরিবর্তনের জন্য উন্মুখ তখন বিএনপিকে ক্ষমতাহীন দেখানোর জন্য ‘র’ এর সাথে এইসব গোপন বৈঠকের দ্বারা বিএনপির দেশপ্রেমিকদের ধংসের পথকে প্রশস্ত করা হচ্ছে। জাতীয়তাবাদী আদর্শের সাথে সাংঘর্ষিক এই সকল কর্মকাণ্ডের কারনেই দেশে কেউ আর জীবন বাজী রেখে আন্দোলন করছে না। টারজান বা ভবঘুরে টাইপের এই সকল দালালদের কারনে জেনারেল জিয়ার দল আজকাল ভারত পন্থি দলে রুপান্তর করা হচ্ছে বলে অনেকেই আশংকা করছেন। সেক্ষেত্রে আগামীতে সত্যিকারের দেশপ্রেমিক ও জাতীয়তাবাদী জনগণের সামনে মৃত্যুর আশংকা ছাড়া কোন পথ খোলাা থাকবে না। কারন প্রকৃত দেশপ্রেমিকদের তালিকা ‘র’ এর হাতে রয়েছে এবং বিভিন্ন অভিযানের নামে ধীরে ধীরে তাদের হত্যা করা হচ্ছে।

প্রশ্ন হচ্ছে তারেক রহমানের উপদেষ্টা হিসেবে পরিচিত হুমায়ূন কবির একবার চীন যাচ্ছেন লবিং করতে আরেকবার ‘র’ সাথে বৈঠকে করছেন, বৈঠকে মহাসচিবসহ অন্যরা যাচ্ছেন, বিষয়টি সকল মহলকেই ভাবিয়ে তুলেছে; আসলে বিএনপি নেতারা কর্মীদের কাছে কি বার্তা দিচ্ছেন এ সকল কাজ করে? এটাই এখন সকলের প্রশ্ন। এ বিষয়ে বিএনপি হাইকমান্ডের বক্তব্য আশা করছেন তৃণমূল নেতা কর্মীরা। তবে বৈঠকটি কি কোটি কোটি জনতার উপর আস্থা না রেখে ‘র’ এর দ্বারা ক্ষমতায় যাওয়ার প্রশ্নে নাকি আওয়ামী লীগের দমন পীড়ন থেকে বেগম জিয়াসহ অন্যদের মুক্ত করতে তা অচিরেই জানা যাবে।

Facebook Comments
SHARE